শেষ মূর্হুতে কেনাকাটায় মার্কেটগুলোতে উপচে পড়া ভীড় বুড়িচংয়ে ২দিন ধরে বৃষ্টিতে ঈদের কেনাকাটায় ক্রেতারা দুর্ভোগের শিকার

ঈদুল ফিতরের আর মাত্র ২-৩ দিন বাকী।ঈদের কেনাকাটায় বুড়িচং উপজেলার বিভিন্ন মার্কেটগুলোতে ক্রেতাদের উপচে পড়া ভীড় লক্ষ্য করা গেছে।গত দুদিন ধরে দুর্যোগপূর্র্ন আবহাওয়া দিন ভর বৃষ্টি থাকায় ঈদের কেনাকাটা করার জন্য বাধ্য হয়ে ঘর থেকে বের হতে হচ্ছে সাধারন মানুষকে।ক্রেতারা বৃষ্টিতে ভিজে দুর্ভোগের মধ্যদিয়েও দোকানে দোকানে গিয়ে কেনাকাটা করছেন।উপজেলার প্রতিটি মার্কেটে দেখা গেছে মহিলা,শিশু ক্রেতার সংখ্যা বেশী।সবচেয়ে বেশী ক্রেতা হচ্ছে প্রবাসীদের স্ত্রী ছেলে মেয়ে।মার্কেটগুলোতে মহিলাও কিশোরী এবং শিশু ক্রেতাদের ভীড়ে তিল ধারনের স্থান নেই,উপচে পড়া ভীড়।তারপরও ব্যবসায়ীদের মুখে হাসি নেই গত দুদিন ধরে বৃষ্টি থাকায় ।বুড়িচং বাজারের খাঁন পয়েন্টের মালিক ইঞ্জিনিয়ার বাছির খাঁন বলেন,গত দু সপ্তাহ ধরে ভাল বেচাকেনা হয়েছে।বৃষ্টি থাকায় দুর্ভোগের কারনে ক্রেতাদের উপস্থিতি আগের মত নেই।তবে বৃষ্টির পূর্বে আশাতীত ব্যবসা বাণিজ্য হয়েছে।এবারে মেয়েদের পছন্দের জামা কাপড়রের মধ্যে হচ্ছে ইন্ডিয়ান গোল গলার টু পিস,থ্রী পিস জামা,ছেলেদের পছন্দ বিভিন্ন রকমের পাঞ্জাবী আর শিশুদের পছন্দ জুতাসহ বিভিন্ন রকমের পোশাক।উপজেলার যে সমস্ত মার্কেটগুলোতে সবচেয়ে বেশী ভীড় তাহল বুড়িচং উপজেলা সদর,নিমসার বাজার,ভরাসার বাজার,শংকুচাইল বাজার,ময়নামতি ক্যান্টনম্যান্ট,সাহেবের বাজার,কংশনগর বাজার,ভারেল্লা বাজার,আবিদপুর বাজার,কালিকাপুর বাজার,ছয়গ্রাম বাজার,ফকির বাজার,তৈলকূপি বাজার এবং ব্রাহ্মণপাড়া উপজেলাসহ বিভিন্ন বাজারে দুর্যোগপূন আবহাওয়ার মধ্যেও ক্রেতারা কেনাকাটা করতে ব্যস্ত ।
এছাড়াও যে সমস্ত দোকানপাটে ক্রেতাদের ভীড় লক্ষ্য করা যায় তাহল পুরুষদের আতর টুপির,লুঙ্গি পাঞ্জাবীর দোকান,মহিলাদের বিভিন্ন রকম শাড়ীর দোকান।

Print Friendly, PDF & Email
No votes yet.
Please wait...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *